২৫ সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে দীঘি অভিনীত প্রথম ছবি ‘তুমি আছো তুমি নেই’

image_pdfimage_print

অনেক বাকযুদ্ধ, মামলা-মোকদ্দমা হুমকি ধামকির মধ্য দিয়ে ১২ মার্চ দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত ‘তুমি আছো তুমি নেই’ ছবিটি ২৫টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে। ঢাকা মহানগরে ছবিটি মুক্তি পেয়েছে ছয়টি সিনেমা হলে। যেহেতু ছবিটি নিয়ে এতো আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে, সেহেতু সকলেরই কৌতুহল ছিল ছবিটির ব্যবসা কেমন হচ্ছে? সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ কেউ ইতোমধ্যেই নিজেদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তবে তা ইতিবাচক কিছু নয়। এটি দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর ৮৩তম ছবি।
তিনি বলেছেন, এটিই তার জীবনের শ্রেষ্ঠ ছবি। তিনি একথাও বলেছেন, তার পক্ষে হয়তো আর ছবি নির্মাণ করা হবে না। তার কথা অনুসারে এটাই যদি তার শেষ ছবি হয়ে থাকে, তাহলে এই ছবিটিকে কেন্দ্র করে নতুন একজন নায়িকার সঙ্গে বিতণ্ডায় জড়িয়ে তিনি যে দৃশ্যের অবতারণা করেছেন, তা কারো জন্যই সুখকর নয়। তার ছবির নায়িকা দীঘিকে নিয়ে তিনি যেসব বক্তব্য দিয়েছেন, তাও সবাইকে অবাকই করেছেন।
একজন প্রবীণ পরিচালক এই রিপোর্টারকে নিজে থেকেই ফোন করে বলেছেন, ‘ঝন্টু এই ধরনের উগ্র আচরণ করছে কেন?’ দীঘিকে তিনি বলেছেন, ‘দুই পয়সার মেয়ে।’ উক্ত পরিচালক বলেছেন, দীঘি যদি দুই পয়সার মেয়ে হয়ে থাকে তাহলে তাকে নিয়ে এমন বড় একটি প্রোজেক্ট বানালেন কেন? ঝন্টুর এই বক্তব্যের প্রেক্ষিতে দীঘির পরিবার থেকে ফেসবুক মেসেঞ্জারে এই রিপোর্টারকে বলা হয়েছে, তারাও মানহানির মামলা করতে পারেন। এমনটাই তারা ভাবছেন। তবে ছবিটির প্রদর্শনী শেষ হওয়া পর্যন্ত তারা অপেক্ষা করবেন। এই ছবিটি নিয়ে দর্শকের মধ্যে শিশুশিল্পী দীঘি নায়িকা হয়ে কেমন করলেন তা দেখার জন্য কৌতুহল ছিল।
ঝন্টু-দীঘির বিতণ্ডা তা অনেকটাই স্তিমিত করে দিয়েছে। অপর একজন পরিচালক বলেন, ‘ঝন্টু ভাই আমাদের কাছে একজন সম্মানিত ব্যক্তি। যে কোনো আচরণেই তাকে ধৈর্য্যশীল ও সংযত থাকা প্রয়োজন। দীঘির সঙ্গে তার এই মতবিরোধ ও বাকযুদ্ধ আমাদের কাছে একেবারেই অপ্রত্যাশিত ও অনভিপ্রেত।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *