হিন্দুরা গাদ্দার, ওদের মা-বোনরাও পণ্য হয়েছে একটা সময়, বললেন যুবরাজ সিংয়ের বাবা

image_pdfimage_print

যোগরাজ সিং। বরাবরই তিনি বিতর্কের কেন্দ্রে থাকতে ভালবাসেন। তার মুখে কোনও কথা আটকায় না। তিনি মনে করেন, যখন তার যেটা মনে হবে, তিনি সেটাই অবলীলায় বলতে পারেন। তিনি কখনও এমএস ধোনিকে নিয়ে যা নয় তাই মন্তব্য করেন। কখনও আবার নিজের স্ত্রীকেও প্রকাশ্যে গালমন্দ করতে ছাড়েন না।
এমন স্বভাবের যোগরাজ আরও বড় বিতর্কে নিজের নাম জড়ালেন কিছুদিন আগে। দিল্লি সীমান্তে আন্দোলনরত কৃষকদের মাঝে গিয়ে আচমকা বলে বসলেন, হিন্দুরা গদ্দার। ওদের মা-বোনরাও পণ্য হয়েছে একটা সময়।
যোগরাজ সিংয়ের এমন অযাচিত ও বিতর্কিত মন্তব্যে ঝড় উঠেছিল দেশজুড়ে। তাকে গ্রেফতারের দাবিও উঠেছিল। কিন্তু অনেকেই প্রশ্ন তুলেছিলেন, কৃষক ও সরকারের মধ্যে কৃষি আইন নিয়ে সমস্যার মাঝে তিনি হঠাৎ হিন্দুদের টেনে আনলেন কেন।
এদিকে, যুবরাজ সিংয়ের যত জ্বালা। বারবার তার বাবা একের পর এক বেফাঁস মন্তব্য করেন। আর তাকে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামতে হয়। এবারও তাই হল। শনিবার ছিলো যুবরাজ সিংয়ের জন্মদিন। এমন দিনেই বাবার সঙ্গে লেগে গেল তার। তিনি সোজা জানালেন, বাবার করা মন্তব্যের সঙ্গে তাকে যেন জুড়ে ফেলা না হয়। তিনি বাবার এমন মন্তব্যের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী।
যুবরাজ সিং এদিন লেখেন, মিস্টার যোগরাজ সিংয়ের মন্তব্যে আমি হতাশ ও দুঃখিত। আমি সাফ জানিয়ে দিতে চাই, ওনার মতামতের সঙ্গে আমার আদর্শ, মতামতের অনেক ফারাক। জন্মদিন ইচ্ছাপূরণের দিন। এমন দিনে এবার আমি কোনও হইহুল্লোড় করব না। বরং আজকের এই দিনে প্রার্থনা করব, সরকার ও কৃষকদের মধ্যে যে সমস্যা তৈরি হয়েছে তা যেন আলোচনার মাধ্যমে সুরাহা হয়ে যায়।
কৃষকরা দেশের প্রাণশক্তি। ওদের এই অবস্থায় দেখতে ভাল লাগে না। পাঞ্জাবের বহু ক্রীড়াবিদ ইতিমধ্যে কৃষক অন্দোলনের সমর্থনে নিজেদের পুরষ্কার সরকারের কাছে ফিরিয়েছেন। যোগরাজ সিং তাদের সমর্থন করেছিলেন। এদিন যুবরাজও সেইসব ক্রীড়াবিদদের প্রতি তার সমর্থন রয়েছে বলে জানালেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *