স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা উচিত: সাংবাদিক এম এ আজিজ

image_pdfimage_print

শনিবার ডিবিসি টিভির টকশোতে সিনিয়র সাংবাদিক এম এ আজিজ বলেন, এখন জনগণের স্বাস্থ্য সচেতনতার ক্ষেত্রে উদাসীনতা তৈরি হয়েছে। মাস্ক পরা, সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মার্কেটগুলোতে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখা সব কিছু একদম কমে গেছে। দেশের মানুষের প্রচুর পরিশ্রম করে। তাদের ইমিউনিটি ক্ষমতা বেশি। মানুষ সচেতন থাকলে করোনা ভাইরাসের প্রভাব থাকবে না। শুধু সব বিধিমালা মেনে চলতে হবে। উন্নত বিশ্বের মান ধরে রাখতে, শিক্ষার মানকে বাড়াতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা উচিত।
বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের সাবেক উপাচার্য ডা. মো. নজরুল ইসলাম বলেন, শীতে করোনা ভাইরাস কাপড় না থাকা এবং পথে-ঘাটে শুয়ে থাকা অসহায় মানুষগুলোর মাধ্যমেও ছড়িয়েছে। শীতে ভাইরাস দমে থাকলেও গরমকালে ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবান রয়েছে। সব মানুষকে সাবধানে থাকার পাশাপাশি সচেতন থাকতে হবে।
টিবিএন টুয়েন্টিফোরের প্রধান সম্পাদক নাজমুল আশরাফ বলেন, শিক্ষার্থীদের জীবনকে বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। সেজন্য সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কিছু সময় খোলা হয়েছে এবং বন্ধ রাখা হয়েছে। সব দেশগুলোতে এখন করোনাভাইরাসের মৃত্যু হার কমে গেছে। টিকা আসার পর থেকে সব কিছু স্বাভাবিক হয়ে যাচ্ছে। সব কিছু ঠিক হয়ে গেলেও আশঙ্কা এখনো কাটেনি। সংক্রমণ বাড়লে স্বাস্থ্য সচেতনতার ওপর বেশি জোর দিতে হবে। সরকারকে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিয়ে সব কাজ করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *