সাবেক সব রুশ প্রেসিডেন্ট সহ আজীবন দায়মুক্তি পেলেন পুতিন

image_pdfimage_print

নিজে সহ রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্টদের যেকোন রকম অপরাধ থেকে সারাজীবনের জন্য দায়মুক্তি দিয়ে একটি বিলে স্বাক্ষর করেছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এর ফলে তাদেরকে কোনো পুলিশ বা তদন্তকারী জিজ্ঞাসাবাদ পর্যন্ত করতে পারবে না।
মঙ্গলবার প্রকাশিত এই বিলে বলা হয়েছে, সাবেক প্রেসিডেন্টরা এবং তাদের পরিবারগুলো জীবদ্দশায় যেকোনো রকম অপরাধ করুন না কেন, তারা সারাজীবনের জন্য দায়মুক্তি পাবেন।
বিলটি রাশিয়ার সংবিধান সংশোধনীর অংশবিশেষ। এই গ্রীষ্মে সংশোধিত সংবিধান অনুমোদিত হয় সারাদেশের ভোটে। সেই ভোটে ৬৮ বছর বয়সী প্রেসিডেন্ট পুতিনের ২০৩৬ সাল পর্যন্ত রাশিয়ায় ক্ষমতায় থাকার পথ পাকাপোক্ত হয়।
এই বিলটি আইনে পরিণত হওয়ার আগেই সাবেক প্রেসিডেন্টরা কোনো অপরাধের জন্য দায়মুক্তি পেয়েছেন শুধু ওই সময়ের জন্য, যখন তারা ক্ষমতায়। কিন্তু পুতিন নিজেকেসহ তাদেরকে সুযোগ করে দিলেন। ফলে এখন শুধু ক্ষমতায় থাকাকালীনই নয়, সারাজীবন তারা দায়মুক্তির সুবিধা ভোগ করবেন।
রুশ প্রেসিডেন্টরা যত বড় অপরাধই করুন না কেন, হোক সেটা রাষ্ট্রদ্রোহ বা এর মতো ভয়াবহ অন্য কোনো অপরাধ বা সুপ্রিম এন্ড কনস্টিটিউশনাল কোর্টে নিশ্চিত করা হোক না কোনো অভিযোগ- কোনো অভিযোগই তাদেরকে স্পর্শ করতে পারবে না।
এই বিলের ফলে সাবেক প্রেসিডেন্টরা ফেডারেশন কাউন্সিল বা সিনেটে আজীবন আসন পাবেন। এই অবস্থানের কারণে প্রেসিডেন্ট পদ ছেড়ে গেলেও তারা বিচারের হাত থেকে রক্ষা পাবেন।
গত মাসে বিলটি স্থগিত আকারে থাকার সময় গুজব রটে দীর্ঘদিনের প্রেসিডেন্ট পুতিন তার ভগ্ন স্বাস্থ্যের কারণে পদত্যাগের পরিকল্পনা করছেন। কিন্তু এ দাবি উড়িয়ে দেয় ক্রেমলিন।
মঙ্গলবার রাশিয়ার বিচার বিভাগের, আইন প্রয়োগকারী, নিয়ন্ত্রক ও সামারিক বাহিনীকে গোপন তথ্য শেয়ার করে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ দুমা’য় একটি আইন পাস করে। এখন এতে পুতিন স্বাক্ষর করলেই তা আইনে পরিণত হবে। এখন তা শুধু আনুষ্ঠানিকতা মাত্র।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *