রোববার বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে ঢাবি এলাকায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন করা হবে: ভাস্কর রাশা

image_pdfimage_print

এ কথা তিনি শনিবার জানান। বঙ্গবন্ধুর এ ভাস্কর্যটি তিনি উত্তম ঘোষ র্নিাণ করেছেন। মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের উদ্যোগে এটি স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এটি উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠান রয়েছে দুপুর বারোটায়। ভাস্কর্যের নাম, ‘অবিনশ্বর বঙ্গবন্ধু’।
শনিবার মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক আল মামুনও এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবদান অনস্বীকার্য। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করা প্রয়োজন। যার জন্য আমরা বাংলাদেশ নামক একটি রাষ্ট্র পেয়েছি, সেই রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠে আজও পর্যন্ত তার কোন ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়নি। মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করে শতবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে গৌরবান্বিত করতে যাচ্ছি।
এ উপলক্ষ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে শনিবার বিকাল ৩টা থেকে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। এই ভাস্কর্যটি নির্মান করা হয়েছে গানমেটাল দিয়ে। এর ভিত্তি হবে ৫ ফুট আর ভাস্কর্যের উচ্চতা হবে আড়াই ফুট।
তবে এই বিষয়ে কিছুই জানে না কর্তৃপক্ষ। ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, আমি এই বিষয়ে কিছু জানি না। এই রকম কোন অনুমোদন নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *