মহামারির মধ্যেও এশিয়ায় সবচেয়ে বেশি প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশের : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

image_pdfimage_print

নিজস্ব প্রতিবেদক
করোনা মহামারির মধ্যে এশিয়ার সবগুলো দেশের মধ্যে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি সবচেয়ে বেশি বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা ভবনে ‘আর্ট এগিনিস্ট করোনা’ শীর্ষক মাসব্যাপী চিত্রকর্ম প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এই কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফ যখন ধারণা করেছিল বিশ্বের কোনো দেশের জিডিপির প্রবৃদ্ধি ১.৩৮ থেকে ৩.৩৮ শতাংশের বেশি হবে না, তখন বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি ৫.২ শতাংশ। এটা অভাবনীয় সাফল্য। করোনাকালেও প্রমাণিত হলো আমরা বীরের জাতি।’

ড. মোমেন বলেন, ‘করোনা মহামারিতে বন্ধুপ্রতিম দেশগুলোকে প্রবাসী বাংলাদেশিদের খাবারসহ চিকিৎসার ব্যবস্থা করার অনুরোধ করা হয়েছিল। তারা আমাদের কথা রেখেছেন। প্রবাসী বাংলাদেশিদের সাহায্যের জন্য বাংলাদেশের বৈদেশিক মিশনগুলোতে অর্থ পাঠানো হয়েছিল। দেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের পরিবারকে সহায়তার জন্য দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় বিশেষ ব্যবস্থা রেখেছে।’

বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতের অর্ডার বাতিল হওয়ার পর আমাদের প্রচেষ্টায় বাতিল হওয়া অর্ডারের শতকরা ৪০ ভাগ পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

এক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কূটনৈতিক প্রচেষ্টার এসব সম্ভব হয়েছে জানিয়ে মোমেন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানদের সাথে আলাপ করেছেন যাতে তারা আমাদের এই সাপ্লাই চেইন নষ্ট না করেন।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সময় করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ, সংস্কৃতিবিষয়ক সচিব মো. বদরুল আরেফীন ও বরেণ্য চিত্রশিল্পী জামাল আহমেদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *