ভয়াবহ এক দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে একটি ট্রেন

image_pdfimage_print

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
নেদারল্যান্ডে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। তবে ভাগ্য জোরে রক্ষা পেল যাত্রীরা। নাটকীয়ভাবে এড়ানো গেছে বড় ক্ষয়-ক্ষতি। ঠিক কী ঘটেছে? ঠিক সিনেমার মতোই শেষ স্টেশনে না থেমে প্রচণ্ড গতিতে ধাক্কা মেরে স্টেশনের প্রাচীর ভেঙে বাইরে বেরিয়ে আসে একটি মেট্রো রেল।

তবে কপাল বোধ হয় একেই বলে। প্রাচীর ভেঙে বাইরে বেরিয়ে এসে শূন্যে বাসছিল ট্রেনটি, কারণ একটি তিমির লেজ! ‘তিমির লেজ’ -এর জেরেই নিচে পড়া থেকে রক্ষা পেয়েছে একটা গোটা ট্রেন। নেদারল্যান্ডসের রটারড্যাম শহরে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার নেদারল্যান্ডসের রটারড্যাম শহরে এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, মেট্রোরেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। তাই শেষ স্টেশনে এসেও ট্রেনটি থামেনি। একপর্যায়ে স্টেশনের পাঁচিল ভেঙে বাইরে বেরিয়ে আসে। এতে অনেক ক্ষতিও হতে পারতো। তবে বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে ট্রেনটি বাঁচিয়ে দিয়েছে একটি তিমির লেজের ভাস্কর্য। আশ্চর্যজনকভাবে ট্রেনের সামনের দিকের বগিটি এই লেজে আটকে যায়। ফলে নিচে পড়া থেকে রক্ষা পায় মেট্রোরেলটি।

কর্তৃপক্ষ জানায়, ২০ বছর আগে মেট্রোরেলটির কাছে একটি পার্কে ওই তিমি মাছের ভাস্কর্যটি বানানো হয়। দুটি বড় তিমির মাছের দৈত্যাকার লেজ এই ভাস্কর্যের বৈশিষ্ট্য। এর একটি লেজ ট্রেনটিকে দুর্ঘটনা থেকে বাঁচিয়েছে। এ ঘটনায় ট্রেনের চালক প্রাণে বেঁচে গেছেন। জানা গেছে, ট্রেনটিতে কোনো যাত্রী ছিল না। কেবল ওই চালকই ছিলেন।

এই ঘটনার পরে আর্কিটেকচারস, ইঞ্জিনিয়ারেরা এবং কিছু বিশেষজ্ঞরাও ঘটনাস্থলে হাজির হন। জরুরি পরিষেবার ভিত্তিতে ট্রেনটিকে স্টেশনে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনায় কিছুটা ক্ষয়ক্ষতি হলেও বড় ধরনের ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া গেছে। প্রাণহানির কোনো খবর পাওয়া যায়নি। তবে ট্রেনটি কীভাবে নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছিল, তাও জানার চেষ্টা চলছে।
ভয়াবহ এক দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে একটি ট্রেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *