বিরল ছবি, ভিডিও ও অডিও প্রকাশ করলো নাসা, প্রথমবারের মতো মঙ্গলের শব্দ শুনলো পৃথিবী

image_pdfimage_print

মঙ্গলে প্রেরণ করা মহাকাশযান পারসিভ্যারেন্স রোভারের মঙ্গলে অবতরণের নতুন ছবি, ভিডিও ও অডিও প্রকাশ করেছে নাসা। ৩ মিনিট ২৫ সেকেন্ডের সেই ভিডিওতে শোনা গিয়েছে মঙ্গলের বাতাসের মৃদু ধ্বনি।
পার্সি মঙ্গলের বায়ুমন্ডলে প্রবেশ করার ২৩০ সেকেন্ড পর থেকে শুরু হয় ভিডিও। তখন মহাকাশযানের গতি ছিল ঘণ্টায় সাড়ে ১২ হাজার মাইল। অবতরণের পূর্বের রুদ্ধশ্বাসময় চ্যালেঞ্জ গতি কমাতে ব্যবহার করা হয় ৭০ ফুট ব্যাসের প্যারাশ্যুট।
ভিডিওতে মরুভূমির মতো দেখতে উচুঁ-নিচুঁ পৃষ্ঠদেশ দেখা গিয়েছে। রয়েছে বড় বড় গহ্বর। মহাকাশযানটি ২০ মিটার দুরুত্ব থেকে মঙ্গলের কাছে এগিয়ে আসার সময় গ্রহটির পৃষ্ঠদেশ থেকে ধুলো উড়তে শুরু করে। পৃষ্ঠদেশের কাছে পৌঁছাতেই রোভারের আটটি চাকাই খুলতে শুরু করে এবং কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই রোভার মঙ্গলের বুকে অবতরণ করে।
নাসার জেট প্রপালশন ল্যাবেরোটরির ডিরেক্টর মাইকেল ওয়্যাটকিনস বলেন, ‘এই ভিডিওগুলো অসাধারণ। আমরা সবাই এই ভিডিওগুলি গত দুই দিন ধরে ক্রমাগত দেখে চলেছি।’
নামার পর মঙ্গলের চারদিকের ছবি তুলেছে পারসিভ্যারেন্সের মাথায় লাগানো ২৫ টি নেভিগেশন ক্যামেরা। শব্দ শনাক্ত করেছে দুটি মাইক্রোফোন।
পার্সি আগামী দশ বছর যাবত মঙ্গলে প্রাণের অস্তিত্ব জানতে নমুনা ও তথ্য সংগ্রহ করবে। তবে এটি আর কোনোদিন পৃথিবীতে ফিরবে না। ২০২৬ সালে পুনরায় মঙ্গলে পাঠানো হবে আরেকটি মহাকাশযান, সেটিই ২০৩০ সালে পার্সির সংগৃহীত নমুনা পৃথিবীতে নিয়ে আসবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *