বিএমডিএ’র ৩৮ কর্মকর্তার বদলি, চলছে লবিং

image_pdfimage_print

বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের-বিএমডিএ ৩৮ কর্মকর্তাকে একযোগে বদলি করা হয়েছে। এসব কর্মকর্তা এক থেকে দেড় যুগ একই কর্মস্থলে ছিলেন। এ সংক্রান্ত একটি সংবাদ ১৩ আগস্ট যুগান্তরে প্রকাশিত হয়। এরপর তৎপর হয়ে উঠে বিএমডিএ কর্তৃপক্ষ। অবশেষে ৭ ডিসেম্বর বিএমডিএ’র ভারপ্রাপ্ত সচিব ইকবাল হোসেন স্বাক্ষরিত এক আদেশে তাদের অন্যত্র বদলি করা হয়েছে। তবে কর্মকর্তারা তাদের আগের কর্মস্থলেই থাকার জন্য তৎপরতা শুরু করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।
বদলির আদেশে সহকারী প্রকৌশলীদের মধ্যে তানোর জোনের মোহাম্মদ শরিফুল ইসলামকে মিঠাপুকুর জোনে, মান্দা জোনের মাহফুজুর রহমানকে তানোর জোনে, আত্রাই জোনের আনোয়ার হোসেনকে মান্দা জোনে, সাদুল্লাপুর জোনের আলী হোসেনকে আত্রাই জোনে, সদর দফতরের কামরুল আলমকে রানীনগর জোনে, গোমস্তাপুর জোনের জামিনুর রহমানকে পীরগঞ্জ জোনে, গোদাগাড়ী জোন-২ এর মোস্তাফিজুর রহমানকে গোমস্তাপুর জোনে, দিনাজপুর জোনের নজরুল ইসলামকে গোদাগাড়ী জোন-২-এ, পবা জোনের এএসএম দেলোয়ার হোসেনকে দিনাজপুর জোনে, সদর দফতরের সানজিদা খানম মলিকে পবা জোনে, রংপুর সদর জোনের মোফাজ্জল হোসেনকে তারাগঞ্জ জোনের অতিরিক্ত দায়িত্ব এবং রংপুর সার্কেলের মোহাম্মদ মোস্তাক আহমেদ সরকারকে বদরগঞ্জ জোনের অতিরিক্ত দায়িত্ব পালনের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।
আদেশে রানীনগর জোনের সহকারী প্রকৌশলী (চলতি দায়িত্ব) সৈয়দ মো. মিজানুর রহমানকে সাদুল্লাপুর জোনে, আক্কেলপুর জোনের ভারপ্রাপ্ত সহকারী প্রকৌশলী তারেক আজিজকে গোবিন্দপুর জোনে, গোবিন্দগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত সহকারী মুনসুর আলী সরদারকে আক্কেলপুর জোনে, মিঠাপুকুর জোনের ভারপ্রাপ্ত সহকারী প্রকৌশলী আলমগীর কবীরকে মিঠাপুকুর জোনে বদলি করা হয়েছে।
একই আদেশে গোমস্তাপুর জোনের নকশাকার ইসমাইল হোসেনকে রংপুর সার্কেলে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সার্কেলের উপসহকারী প্রকৌশলী মোহাতাব উদ্দীনকে গোমস্তাপুর জোনে, নাচোল জোনের উপসহকারী প্রকৌশলী উচ্চতর উপসহকারী প্রকৌশলী আলম আবদুল মান্নানকে সদর দফতরে, সদর দফতরের উচ্চতর উপসহকারী প্রকৌশলী নাইমুল হাসানকে কুড়িগ্রাম জোনে, পাবনা জোনের উচ্চতর উপসহকারী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলমকে পীরগঞ্জ জোনে বদলি করা হয়েছে। বড়াইগ্রাম জোনের উপসহকারী প্রকৌশলী ওমর আরিফ জায়েদীকে পাবনা জোনে, পোরশা জোনের আবদুল খালেককে রাণীশংকৈল জোনে বদলি করা হয়েছে।
এছাড়া ক্ষেতলাল জোনের উচ্চতর উপসহকারী প্রকৌশলী টিএম শফিকুল ইসলামকে রংপুর সদর জোনে, মোহনপুর জোনের উপসহকারী প্রকৌশলী আবুল কাশেমকে ক্ষেতলাল জোনে, রাজশাহী রিজিয়নের রফিকুল ইসলামকে মোহনপুর জোনে, পাঁচবিবি জোনের মুঞ্জুরুল ইসলামকে সিরাজগঞ্জ জোনে এবং ধামইরহাট জোনের উপসহকারী প্রকৌশলী সালাহ উদ্দীন আহমেদকে পাঁচবিবি জোনে, দুর্গাপুর জোনের রায়হান ইসলামকে দিনাজপুর জোনে, একই জোনের শামসুল ইসলামকে সাদুল্লাপুর জোনে, বদলগাছির
আতাউল হককে পত্নীতলা জোনে এবং পত্নীতলা জোনের মাশুয়ার আহমেদকে রংপুরের পীরগঞ্জ জোনে বদলি করা হয়েছে।
এ আদেশে বিএমডিএ’র পরিদর্শকদের মধ্যে নওগাঁ রিজিয়নের পরিদর্শক তাপস কুমার দত্তকে গোবিন্দগঞ্জ জোনে, পুঠিয়া জোনের পরিদর্শক আবু তাহেরকে মান্দা জোনে, মান্দা জোনের আনোয়ার-উল-ইসলামকে কাহারোল জোনে, তানোরের পরিদর্শক আবদুর রবকে ধামইরহাট জোনে, চাঁপাইনবাবগঞ্জের পরিদর্শক মঞ্জুর হোসেনকে তানোর জোনে বদলি করা হয়েছে।
বিএমডিএ সূত্রে জানা গেছে, বদলি করা এসব কর্মকর্তা একই স্থানে দীর্ঘদিন থেকে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছিলেন। কেউ কেউ একই স্থানে পার করেছেন এক থেকে দেড় যুগ। নানা অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। আর এ কারণেই তালিকা করে তাদের বদলি করা হয়েছে।
আদেশে বলা হয়েছে, ৯ ডিসেম্বরের মধ্যে তারা ছাড়পত্র গ্রহণ করবেন এবং ১০ তারিখ সকাল থেকেই তারা নতুন কর্মস্থলে যোগ দেবেন। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১২ ডিসেম্বরেও বেশির ভাগ কর্মকর্তা নতুন কর্মস্থলে যোগ দেননি। তারা বদলির আদেশ বাতিলের জন্য তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন।
জানতে চাইলে বিএমডিএ’র নির্বাহী পরিচালক শ্যাম কুমার রায় বলেন, আমরা উত্তরাঞ্চলে সেচ কার্যক্রম পরিচালনা করি। সরকার বলেছে, দেশের আবাদযোগ্য এক ইঞ্চি মাটিও যেন অনাবাদি না থাকে। কিন্তু দেখা গেছে, বিএমডিএ’র কোথাও কোথাও প্রয়োজনের অধিক জনবল আবার কোথাও জনবল সংকট। এতে কার্যক্রম পরিচালনা বাধাগ্রস্ত হচ্ছিল। সে কারণেই কর্মকর্তাদের বদলি করা হয়েছে। এই আদেশ বাতিল করে কারও আগের স্থানে থাকার সুযোগ নেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *