বাস পোড়ানোর ঘটনায় ১০ মামলা, গ্রেপ্তার ২৮, নজরদারিতে কয়েকশ বিএনপি নেতাকর্মী

image_pdfimage_print

রাজধানীতে বাসে আগুন দেওয়ার ঘটনায় বিএনপির ইশরাক হোসেন, ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এবং যুবদলের সাধারণ সম্পাদকসহ মোট ৪৬০ জনকে আসামি করে ৯টি মামলা করা হয়েছে। এছাড়া বিষ্ফোরক আইনে আরো একটি মামলা করা হয়েছে।
মামলাগুলোয় এ পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে ২৮ জনকে। পুলিশ বলছে, রাজধানীজুড়ে নাশকতার ঘটনায় ভাড়াটে অপরাধীরা অংশ নেয়। তাদের উদ্দেশ্য ছিল, জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করা। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে চলছে নাশকতাকারীদের শনাক্তের চেষ্টা।
ডিএমপির সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, ভাটারা থানার একটি মামলায় সর্বোচ্চ ৯৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। মতিঝিল থানায় দুই মামলায় আসামি করা হয়েছে ৮৫ জনকে। শাহবাগ ও পল্টন থানার চারটি মামলায় আসামি করা হয়েছে ১৪৯ জনকে।
ডিএমপি মিডিয়া শাখার ডিসি মো. ওয়ালিদ হোসেন বলেন, সুপরিকল্পিতভাবে যেহেতু করেছে সেহেতু তাদের দলীয় পরিচয় আছে। আমরা সেগুলো নিয়ে বিস্তারিত যাচাই-বাচাই করছি। এর মধ্যে বেশ কয়েকজন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীও আছে।
বিশেষ করে কয়েকজন ককটেলসহ হাতে নাতে ধরা পড়েছে। জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির উদ্দেশ্যেই বাস পোড়ানো হয়। রাজনৈতিক পরিচয়ধারী অনেক আসামি রয়েছেন যারা আগেও এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে।
পুলিশ ধারণা করছে, ঢাকা-১৮ আসনে সংসদীয় উপ-নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিরোধী কোনও পক্ষ নাশকতার উদ্দেশ্যে একযোগে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় বাসে আগুন দিয়েছে। নির্বাচনী এলাকার দু’টি স্থানে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ও ভোটগ্রহণের সময় রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে গণপরিবহনে আগুন দেওয়ার ঘটনা এক কিনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *