বাংলাদেশি গৃহকর্মী হত্যায় সৌদি গৃহকর্ত্রীর মৃত্যুদণ্ড

image_pdfimage_print

বাংলাদেশি গৃহকর্মী আবিরন বেগমকে গত বছর মার্চে পিটিয়ে হত্যার দায়ে সৌদি গৃহকর্ত্রী আয়েশা আল-জিজানিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে সৌদি আরবের আদালত। একই সঙ্গে গৃহকর্তা বাসেম সালামের ৩ বছরের কারাদণ্ড ও তার ছেলে ওয়ালিদ বাসেমকে ৭ মাসের জন্যে সংশোধনাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছে রিয়াদের অপরাধ আদালত।
২০১৯ সালের ২৪ মার্চ ৪০ বছর বয়স্ক আবিরনকে নির্যাতনের পর হত্যা করার ৭ মাস পর তার লাশ দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। আবিরনের দুলাভাই আয়ুব আলী জানান হতভাগ্য ওই গৃহকর্মীকে ভয়াবহ নির্যাতনের ফলে তারা তার লাশের দিকে তাকাতে পারছিলেন না।
গত ডিসেম্বেরে সৌদি আদালতে এ হত্যামামলার বিচার শুরু হলে সৌদি গৃহস্বামী বাসেম সালামের পরিবারের পক্ষ থেকে দেশটির কিসাস আইন অনুসারে অর্থ জরিমানা দিয়ে আপোসের প্রস্তাব দেওয়া হলে তা প্রত্যাখ্যান করে আবিরনের পরিবার।
রিয়াদে বাংলাদেশি দূতাবাস এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। ২০১৭ সালে আবিরন সৌদিতে বাসেমের ৮ সদস্যের পরিবারে গৃহকর্মীর কাজ শুরু করেন।
আবিরনের গায়ে গরম পানি ঢেলে ও মেটাল গ্রিল দিয়ে নির্যাতন চালানো হয় বলে তার পরিবার অভিযোগ করেছে।
গত ৫ বছরে সৌদি আরব থেকে নির্যাতনে অন্তত ২শ গৃহকর্মীর মৃত্যুর পর তাদের লাশ দেশে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। আবিরনের লাশ ফিরিয়ে আনতে সহায়তা করে স্থানীয় একটি এনজিও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *