প্লে-অফের পথে আরও এগিয়ে গেলো মুম্বাইয়

image_pdfimage_print

স্পোর্টস ডেস্ক
কোহলির রয়াল চ্যালেঞ্জার ব্যাঙ্গালুরুকে ৫ উইকেটে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলে নিজের অবস্থান অটুট রাখল মুম্বাই। বুধবার রাতে আবুধাবির শেখ জায়েদ ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শীর্ষস্থান দখলের লড়াইয়ে জিতেছে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস।

দুই ওপেনার দ্রুত ডাগ-আউটে ফিরলেও সূর্যকুমার যাদবের দুরন্ত ব্যাটিংয়ে হেসে খেলে ম্যাচ জিতে নেয় দলটি। ৪৩ বলে ৩ ছয় ও ১০ চারের সাহায্যে ৭৯ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন সূর্যকুমার। দুই ওপেনার কুইন্টন ডি কক ১৮ ও ইশান কিষান ২৫ রান করেন।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুট যে ঝড়ো গতিতে রান করেছিল, তাতে মনে হয়েছিল মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকে ২০০ রানের বেশি টার্গেট ছুড়ে দিতে পারবে রয়াল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু।

কিন্তু মুম্বাইয়ের বোলাররা ব্যাঙ্গালুরুর ব্যাটসম্যানদের লাগাম টেনে ধরে সেই লক্ষ্যকে ১৬৫ রানে থামিয়ে দেয়।

ব্যাট করতে নেমে জস ফিলিপ এবং দেবদূত পাড্ডিকাল ৭.৫ ওভারেই ৭১ রানের জুটি গড়েন। চমৎকার খেলছিলেন এই দুই ওপেনার। কিন্তু তাদের জুটিতে কুঠারাঘাত করেন রাহুল চাহার। ২৪ বলে ৩৩ রান করে চাহারের বলে আউট হন ফিলিপ।

মাত্র ৯ রান করে পেসার জসপ্রিত বুমরার বলে তিওয়ারির হাতে ক্যাচ তুলে দেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ১২ বলে ১৫ রান করে আউট হন এবি ডি ভিলিয়ার্সও। প্রোটিয়া তারকাকে ফেরান অধিনায়ক পোলার্ড। দলের সবচেয়ে বেশি নির্ভরযোগ্য এই দুই ব্যাটসম্যানের এতো কম রানে বিদায়ে রানের গতি শ্লথ হয় পড়ে আরসিবির।

শেষ দিকে গুরকিরাত অপরাজিত ১৪ রান ও ওয়াশিংটন সুন্দরের অপরাজিত ১০ রান যোগ করলে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রান জমা করে ব্যাঙ্গালুরু।

মুম্বাইয়ের সবচেয়ে সফল বোলার জসপ্রিত বুমরা। ৪ ওভারে মাত্র ১৪ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন তিনি। এছাড়া ট্রেন্ট বোল্ট, রাহুল চাহার এবং কায়রন পোলার্ড ১টি করে উইকেট নেন।

ম্যাচসেরা হয়েছেন সূর্যকুমার যাদব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *