প্রাথমিক শিক্ষকদের বদলি বন্ধ

image_pdfimage_print

নিজস্ব প্রতিবেদক :
করোনাকালে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকের সব ধরনের বদলি বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। সারাদেশের আটটি বিভাগের উপ-পরিচালককে এই নির্দেশনা দিয়ে গতকাল রোববার (২৫ অক্টোবর) চিঠি দেওয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণজনিত কারণে দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো বন্ধ রয়েছে। এ অবস্থায় শিক্ষকদের সব ধরনের বদলি বন্ধ রাখা সমীচীন। এমতাবস্থায় করোনাকালীন বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় শিক্ষকদের সব ধরনের বদলি বন্ধ রাখার জন্য অনুরোধ করা হল।

দেশের সব জেলা প্রাথমিক শিক্ষক কর্মকর্তা ছাড়াও উপজেলা ও থানা শিক্ষা কর্মকর্তাদের চিঠির অনুলিপি পাঠানো হয়েছে।

অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, অনলাইনে বদলি কার্যক্রম শুরুর জন্য কেন্দ্রীয়ভাবেই বদলি সাময়িক বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। কেন্দ্রীয়ভাবে বন্ধ থাকলেও মেট্রোপলিটন সিটি ও শহর ছাড়া স্থানীয় পর্যায়ে উপ-পরিচালক, জেলা শিক্ষা অফিসার, উপজেলা শিক্ষা অফিসার নিজ নিজ অধিক্ষেত্রে বদলি কার্যক্রম চালু ছিল। এই নির্দেশনা জারির পর সব ধরনের বদলি বন্ধ হয়ে গেলো।

অনলাইনে বদলি কার্যক্রম এ মাসে ট্রায়ালে যাওয়ার কথা থাকলেও তা নিয়ে অনেকটাই অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। তবে নভেম্বরের শুরুতে সফটওয়ার ট্রায়াল শুরু সম্পন্ন করা গেলে জানুয়ারির মধ্যে বদলি কার্যক্রম চালু করা যাবে। অন্যথায় জানুয়ারির পর হার্ড কপিতে বদলি কার্যক্রম চলবে। আর অনলাইন প্রস্তুত হলেও নীতিমালা সংশোধনের প্রয়োজন রয়েছে। তাই মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা ও বিশেষ ব্যবস্থায় বদলি কার্যক্রম চালাতে হবে। করোনার মধ্যে এই ব্যবস্থায় না যাওয়ার পক্ষে মন্ত্রণালয়। ফলে বদলি কার্যক্রম জানুয়ারির আগে শুরু হচ্ছে কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

এদিকে গত দুই বছর ধরে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকদের ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে শিক্ষক ভর্তি অনলাইন মাধ্যমে করার প্রস্তুতি চলছে। আগামী বছর থেকে শিক্ষক বদলি আধুনিকায়ন করা হবে বলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, সারাদেশে ৬৫ হাজারের মতো সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে তিন লাখের বেশি শিক্ষক রয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *