নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করায় শীর্ষ নির্বাচনী কর্মকর্তাকে বহিস্কার করলেন ট্রাম্প

image_pdfimage_print

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, নির্বাচনের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে ভুল মন্তব্য করার জন্য তিনি সাইবার সিকিউরিটি এবং ইনফ্রাস্টাকচার সিকিউরিটি এজেন্সি (সিসা) প্রধান ক্রিস্টোফার ক্রেবসকে বরখাস্ত করেছেন।
ক্রিস ক্রেবস মার্কিন নির্বাচনে গুজব নিয়ন্ত্রণ বিষয়ক সিসার একটি ওয়েবসাইট পরিচালনা করতেন যেখানে নির্বাচন নিয়ে ভুল তথ্য খণ্ডন করা হতো।
সিসা ৩ নভেম্বরের মার্কিন নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করে ঘোষণা দিয়েছিলো এই নির্বাচন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের সবচেয়ে সুরক্ষিত হয়েছে এবং কোনো ধরণের জালিয়াতির প্রমাণ মেলে নি। সিসার পক্ষ থেকে বিবৃতি আসার পর ট্রাম্প কয়েক দফায় করা টুইট পোস্টে ক্রিস ক্রেবসের বিরুদ্ধে ‘ভুল তথ্য’ দেয়ার অভিযোগ আনেন।
তবে বরখাস্ত হওয়ার পর ক্রিস ক্রেবস টুইটারে বলেছেন, আমাদের ৫৯ জন নির্বাচনী নিরাপত্তা কর্মকর্তা একমত হয়েছেন যে জালিয়াতির অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই। তিনি আরো বলেন, ‘এই দায়িত্বে কাজ করতে পেরে গর্বিত। আমরা সঠিক কাজটিই করেছি।’
এর আগে গত সপ্তাহে হোয়াইট হাউস থেকে সিসা’র সহকারী পরিচালক ব্রায়ান ওয়ারকে পদত্যাগের নির্দেশ দেয়া হয়।
ট্রাম্প শুরু থেকেই নির্বাচনে পরাজয় মানতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছেন। নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ট্রানজিশন টিমের সঙ্গে সমন্বয়ের প্রক্রিয়া আটকে রেখেছেন, যার ফলে আগামী ২০ জানুয়ারি বাইডেনের দায়িত্ব গ্রহণ নিয়ে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *