দেশে করোনা শনাক্তে ১৮১টি ল্যাব এখন সক্রিয় : অতিরিক্ত মহাপরিচালক

image_pdfimage_print

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করার পরীক্ষাগারের সংখ্যা আরও ১৯টি বেড়েছে। এ নিয়ে পরীক্ষাগারের মোট সংখ্যা দাঁড়ালো ১৫৯টিতে। এর মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ৯৬টি এবং বেসরকারি হাসপাতালে ৬৩টি ল্যাব স্থাপিত হয়েছে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহা-পরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা আরও বলেন, সরকারি চলমান পরীক্ষাগারের মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ৫১টি, জিন-এক্সপার্ট ল্যাব ২৫টি এবং র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট ল্যাব ৪০টি। বেসরকারি ৬৩টি পরীক্ষাগারের মধ্যে আরটি-পিসিআর ৬১টি ও জিন-এক্সপার্ট ল্যাব রয়েছে দুইটি, মোট ১১৪টি।
গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এপর্যন্ত সরকারি ব্যাবস্থাপনায় নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ২৬ লাখ ২০ হাজার ৮৭৬ জনের। এর মধ্যে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৬৯ লাখ ৬৯ হাজার ৩৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। আর মৃত্যু হয়েছে ৭৭১৮ জনের বলে জানিয়েছেন ডা. নাসিমা সুলতানা।
সারাদেশে অক্সিজেন সিলিণ্ডারের সংখ্যা ১২হাজার ৭৭২টি,হাইফ্লো নাজাল ক্যানুলা সংখ্যা ৭১৯ এবং অক্সিজেন কনসেট্রেটর সংখ্যা রয়েছে ৬২১টি।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হাসাপাতাল কন্ট্রোলরোম তথ্যসুত্রে জানা যায় সরকারি (কোভিড ওনন কোভিডসহ মোট) হাসপাতালের যন্ত্রপাতির তালিকা অক্সিজেন সিলিণ্ডার ২৪ হাজার ৭১১টি। হাইফ্লো ন্যাজাল ক্যানুলার সংখ্যা ৭২৭, অক্সিজেন কনসেনট্রেটর ৯১৩টি এবং আইসিইউ শয্যা ৬৮৮সহ ভেন্টিলেটর রয়েছে ৬২০টি।
এছাড়া সারাদেশে মোট শয্যা সংখ্যা ১০ হাজার ৪৪৫ ভর্তিকৃত রোগী রয়েছেন ২ হাজার ১৪৯ জন,খালি রয়েছে ৮ হাজার ২৯৬। আইসিইউ রয়েছে ৬০২টি এবং ভর্তি রোগী রয়েছে ২৫৮ জন,খালি রয়েছে ৩৪৪টি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *