দেশের ৯ জেলায় তীব্র খাদ্য সংকটের শঙ্কা গবেষকদের

image_pdfimage_print

করোনা মহামারির কারণে দেশের ৯টি জেলায় তীব্র খাদ্য সংকটের আশঙ্কা করছেন গবেষকরা। জেলাগুলো হচ্ছে সিলেট, সুনামগঞ্জ, পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, পাবনা, ফরিদপুর, বাগেরহাট ও বরগুনা। আন্তর্জাতিক খাদ্যনীতি গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ফুড পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউট (ইফপ্রি) এই আশঙ্কা করছে। এ তথ্য স্টেটওয়াচের।
পণ্য পরিবহন ও বাজারের ক্ষেত্রে বড় ধরনের বিঘ্ন সৃষ্টি হতে পারে, এ ধারণাকে তথ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে যাচাইয়ের জন্য ‘ফুড ইনসিকিউরিটি এক্সপেরিয়েন্স স্কেল’ নামে একটি পরিমাপক ব্যবহার করে দরিদ্র পরিবারগুলোর খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা পরিমাপ করেছেন ইফপ্রির গবেষকরা।
যৌথভাবে গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন অস্ট্রেলিয়ার ইউনিভার্সিটি অব সিডনির অর্থনীতির সহযোগী অধ্যাপক শ্যামল চৌধুরী এবং ইফপ্রি দক্ষিণ এশিয়া কার্যালয়ের পরিচালক শহীদুর রশিদ, রিসার্চ ফেলো কল্যাণী রঘুনাথন ও রিসার্চ অ্যানালিস্ট নাহিয়ান বিন খালেদ।
শ্যামল চৌধুরী গতকাল হোয়াটস অ্যাপে এ প্রতিবেদককে বলেন, খাদ্য উৎপাদনের সুযোগ কমার পেছনে ভৌগোলিক পার্থক্য যেমন রয়েছে, তেমনি অর্থনৈতিক সুযোগ প্রাপ্তির ক্ষেত্রেও আঞ্চলিক বৈষম্য রয়েছে। এসব জেলায় শস্য বহুমুখিতা যেমন কম, তেমনি দারিদ্র্যের হারও বেশি। ধান নির্ভরতার কারণে আয় বৃদ্ধি করতে পারছে না এখানকার পরিবারগুলো। অন্যদিকে বেশকিছু অঞ্চল নদীভাঙন, লবণাক্ততা, খরা, বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগে পিছিয়ে পড়ছে।
তিনি বলেন, দারিদ্র্যপ্রবণ এলাকাগুলোয় কোভিডের কারণে আর্থিক সংগতি একেবারেই কমে এসেছে। তার ওপর বছরের মাঝামাঝি সময়ে দীর্ঘমেয়াদি বন্যার কারণে খাদ্য উৎপাদন ও সরবরাহ ব্যাহত হয়েছে। এতে জেলাভিত্তিক দরিদ্র ও পিছিয়ে পড়া মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পড়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *