দশকের প্রথম রাষ্ট্রপতি হিসেবে আমি গর্বিত কারণ নতুন কোন যুদ্ধ শুরু করিনি: বিদায়ী বক্তব্যে ট্রাম্প

image_pdfimage_print

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে বিদায় নিচ্ছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর কয়েক ঘণ্টা পরেই তিনি ওয়াশিংটন ছেড়ে চলে যাবেন। তিনি চেয়েছিলেন জাঁকজমকপূর্ণভাবে বিদায় নিতে। কিন্তু তা আর হয়ে ওঠেনি। তাই কোনো ধরনের আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই হোয়াইট হাউজ ছাড়ছেন।
হোয়াইট হাউস ছাড়ার আগে বিদায়ী বক্তব্য দিয়েছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘আমরা যা করতে এসেছিলাম তা করেছি। আমি কঠিন লড়াই, সবচেয়ে কঠিন সিদ্ধান্তগুলো গ্রহণ করেছিলাম।’
বর্তমানে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ব্যক্তিগত সকল সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট বন্ধ রয়েছে। তাই তিনি হোয়াইট হাউস থেকে সরকারি অফিসিয়াল সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে একটি ভিডিও প্রকাশ করেন।
তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘বর্তমানে দেশের জন্য সবচেয়ে বড় বিপদ হলো, আমাদের দেশের উদারতার প্রতি মানুষের আস্থা কমে যাওয়া।’
ট্রাম্প তার সময়ের বিভিন্ন শান্তি চুক্তির কথা উল্লেখ করেন। বলেন, ‘দশকের প্রথম রাষ্ট্রপতি হিসেবে আমি গর্বিত যেকোনো নতুন যুদ্ধ শুরু করিনি।’
ক্যাপিটল হিলে হামলার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন: ‘ক্যাপিটল আক্রমণে সকল আমেরিকান আতঙ্কিত হয়েছিলো। এটা কখনই সহ্য করা যায় না।’
বুধবার সকাল ৮টায় মেরিল্যান্ডে অ্যান্ড্রুজ ঘাঁটিতে ট্রাম্পের বিদায় অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে হোয়াইট হাউস। সেখান থেকে বিদায় অনুষ্ঠান শেষে ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের পাম বিচে যাবেন ট্রাম্প। সেখানে তার মার-এ-লাগো রিসোর্টে শুরু করবেন পরবর্তী জীবন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *