ট্রাম্পের সঙ্গে কথা না বলে তার চিঠি সম্পর্কে কিছু বলবেন না বাইডেন

image_pdfimage_print

সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের লিখে রেখে যাওয়া ৪৫ থেকে ৪৬ পাতার ওই চিঠি সম্পর্কে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন এটি উদারতা। তবে এ চিঠি ব্যক্তিগত বলে ট্রাম্পের সঙ্গে কথা বলেই চিঠি সম্পর্কে প্রকাশে কিছু বলবেন বাইডেন। ওভাল অফিসে বিদায়ী প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে নির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে চিঠি লিখে রেখে যাওয়া এক ঐতিহ্য।
তবে সাংবাদিকরা প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে এ চিঠি সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন এ ব্যাপারে এখনো কিছু বলব না। প্রেসিডেন্ট খুবই সৌজন্যতার সঙ্গে চিঠিটি লিখেছেন। এটি ব্যক্তিগত। ১৭টি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করার পর সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন বাইডেন।
তবে মার্কিন ঐতিহ্য ও রীতি অনুযায়ী প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে কফির দাওয়াতে হোয়াইট হাউসে ডাকেননি ট্রাম্প। বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানেও ছিলেন অনুপস্থিত। রীতি অনুসারে শুধু একটি চিঠি লিখে গেলেন। এ চিঠির কথা নিশ্চিত করেন বুধবার হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জাড ডিয়ার।
সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সও নতুন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে একটি চিঠি লিখে রেখে গেছেন।
১৯৮৯ সালে সাবেক প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যান নতুন প্রেসিডেন্টের জন্যে প্রথম নোট বা চিঠি লিখে যান। তারপর থেকে এ রীতি অনুসৃত হয়ে আসছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *