ট্রাম্পের জন্য ছোট হয়ে আসছে অনলাইন পৃথিবী

image_pdfimage_print

এ তথ্য গত শুক্রবার দিয়েছে টেকডটনেট ও ভার্জ নিউজ এজেন্সি। সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক প্রত্যাখ্যাত হচ্ছেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গত বুধবার স্ন্যাপচ্যাটও ট্রাম্পকে নিষিদ্ধ করে। এর আগে ক্যাপিটল ভবনে সহিংস হামলার পরই ফেসবুক, টুইটার ও ইউটিউব কর্তৃপক্ষ ট্রাম্পকে নিষিদ্ধ করে। ট্রাম্প সমর্থকদের সোশ্যাল প্ল্যাটফর্ম পার্লার নিষিদ্ধের বিষয়ে গত বৃহস্পতিবার আমাজন চুড়ান্ত ব্যবস্থা নিয়েছে।
সব সোশ্যাল মিডিয়ার পক্ষ থেকেই বলা হয়েছে , বাইডেন ক্ষমতা গ্রহণের আগে ট্রাম্প আরও সহিংসতা উসকে দিতে পারেন বলে আশঙ্কা। এছাড়া তিনি যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে যে ন্যাক্কারজনক কাজ করেছেন সেজন্য তাকে স্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।
টেকডটনেটের খবরে বলা হয়, নিজের ভুয়া বার্তা প্রচার করতে না পেরে ট্রাম্প এখন ছটফট করছেন। এ অবস্থায় ক্ষুব্ধ ট্রাম্প বলছেন, তিনি নিজেই এমন একটা প্ল্যাটফর্ম গড়ে তুলবেন। এ নিয়ে তিনি অন্যান্য সাইটের সঙ্গে আলাপ করছেন। তারপর নিজস্ব প্ল্যাটফর্ম তৈরির বিষয়ে ঘোষণা দেবেন শিগগির। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের সরকার নিয়ন্ত্রিত প্রধান প্রযুক্তি সংস্থার নির্বাহী পরিচালক, ট্রেস মুলার গতকাল বলেন, ট্রাম্প যাতে নতুন মিডিয়া না খুলতে পারেন সেদিকে নজরদারি রাখা হচ্ছে।
ট্রাম্পের এই ঘোষণাটি এসেছে রক্ষণশীলদের কাছে জনপ্রিয় সামাজিক মাধ্যম প্ল্যাটফর্ম পার্লার থেকে। পার্লার গত শুক্রবার গুগল প্লে স্টোর থেকে নিষিদ্ধ হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *