আজ ৩ উইকেট পেলেই ঘরোয়া টি-২০ এর রেকর্ডে সাকিবকে টপকে যাবেন মুস্তাফিজ

image_pdfimage_print

বাংলাদেশের মাটিতে টি- টোয়েন্টি ক্রিকেটের সবচেয়ে জমজমাট আসর হিসেবে স্বীকৃত বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। এরই মধ্যে ৭ বার অনুষ্ঠিত হয়েছে এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট। গত সাত আসরে একবার সর্বোচ্চ ২৩ উইকেট শিকারের রেকর্ড করেন বাঁহাতি স্পিনার সাকিব আল হাসান। ২০১৮ সালের বিপিএলে এই কীর্তি গড়েন তিনি।
এবার সাকিবকে ছোঁয়া কিংবা ছাড়িয়ে গিয়ে নতুন রেকর্ড গড়ার বড় সুযোগ বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানের সামনে। এবার বিপিএল হয়নি, তবে ৫ দলের বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এই আসরে ফাইনালে নামার আগ পর্যন্ত মুস্তাফিজ মাত্র ৯ ম্যাচ খেলেই শিকার করেছেন ২১ উইকেট।
বাঁহাতি এই পেসার এবারের আসরে যেন পুরোনো রূপে আবির্ভূত হয়েছেন। নিজেই জানিয়েছেন, আগের মতো বোলিং করার জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছেন তিনি। চেষ্টা করেছি অনুশীলনটা ভালোভাবে করার। জিম, ফিটনেস-রানিংয়ে চেষ্টা করেছি কী করলে আবারও আগের মতো বোলিং করতে পারি। প্রস্তুতি বলতে শুধু আমি না, সব ক্রিকেটাররাই গত ৬ মাস চেষ্টা করেছে কিভাবে ফিট থাকা যায়। সবাই কঠোর পরিশ্রম করেছে।
২০১৮-১৯ সালের বিপিএল আসরে সাকিব ২৩ উইকেট নিয়ে রেকর্ড গড়েন। বাংলাদেশের মাটিতে অনুষ্ঠিত যেকোনো পর্যায়ের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের এক আসরে এরচেয়ে বেশি উইকেট শিকার করতে পারেননি কেউ।
ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি আসর (বিপিএল ও ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন টি-টোয়েন্টি) ছাড়াও ২০১৪ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০১৬ সালে টি-টোয়েন্টি এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এক আসরে সবচেয়ে বেশি উইকেট নেওয়ার রেকর্ড সাকিবের। তবে এবার বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে তার সেই রেকর্ড হুমকির মুখে ফেলেছেন মুস্তাফিজ।
৯ ম্যাচে মাত্র ৬.২৮ ইকোনমি ও ১০.৪২ গড়ে ২১ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। জেমকন খুলনার বিপক্ষে ফাইনালে আর ২ উইকেট শিকার করলেই সাকিবের রেকর্ড স্পর্শ করবেন, ৩টি নিলে সাকিবকে পেছনে ফেলে গড়বেন নতুন ইতিহাস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *